মেনু নির্বাচন করুন

জলমা চকরাখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়

  • সংক্ষিপ্ত বর্ণনা
  • প্রতিষ্ঠাকাল
  • ইতিহাস
  • প্রধান শিক্ষক/ অধ্যক্ষ
  • অন্যান্য শিক্ষকদের তালিকা
  • ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা (শ্রেণীভিত্তিক)
  • পাশের হার
  • বর্তমান পরিচালনা কমিটির তথ্য
  • বিগত ৫ বছরের সমাপনী/পাবলিক পরীক্ষার ফলাফল
  • শিক্ষাবৃত্ত তথ্যসমুহ
  • অর্জন
  • ভবিষৎ পরিকল্পনা
  • ফটোগ্যালারী
  • যোগাযোগ
  • মেধাবী ছাত্রবৃন্দ

                                                    বিদ্যালয়ের সংক্ষিপ্ত বনর্না

খুলনা জেলা সদর থেকে প্রায় ০৮ কিলোমিটার দূরে বটিয়াঘাটা উপজেলার অন্তর্গত জলমা গ্রামে বিদ্যালয়টি অবস্থিত। বিদ্যালয়ের মূল ভবন তিনটি। পূর্ব পার্শ্বে দ্বিতল ভবন, উত্তর পার্শ্বে দ্বিতল ভবন (পূরাতন),পশ্চিম পার্শ্বে একতলা ভবন(নতুন)।বিদ্যালয়ের দক্ষিন পার্শ্বে দীঘি ও বিদ্যালয়ের খেলার মাঠ।তিনটি ভবনে মোট ১৮টি শ্রেনি কক্ষ, একটি শিক্ষক মিলনায়তন, প্রধান শিক্ষকের কক্ষ ও একটি লাইব্রেরী আছে। ০৫টি শ্রেনিতে ১৫টি সেকশন আছে। বিদ্যালয়টিতে মোট ২৩ জন শিক্ষক পাঠদান করেন। বিদ্যলয়টির সামনে রয়েছে একটি ফুলের বাগান। তার পাশে অত্র বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা আমরন প্রধান শিক্ষক শ্রী কালিদাশ টিকাদারের অবক্ষ মূর্তি।

১৯৫৭

বিদ্যালয়ের ইতিহাস

বিদ্যালয়টির ইতিহাস বর্ণনা করতে গেলে যে ব্যক্তিটির নাম প্রথমেই স্মরণ করতে হয় তিনি হচ্ছেন অত্র বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা আমরণ প্রধান শিক্ষক শ্রী কালিদাস টিকাদার। ১৯৫৬ সালের শেষের দিকে কালিদাস টিকাদারের নিজস্ব জলমা ইউনিয়নে কোন মাধ্যমিক বিদ্যালয় না থাকায় তিনি এলাকার শিক্ষানুরাগী ব্যক্তিদের সঙ্গে আলাপ আলোচনা করে একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়  প্রতিষ্ঠার ব্যাপারে জনমত সৃষ্টিতে উদ্যোগী হন। উল্লেখ্য ঐ সময়ে কোন রাস্তা-ঘাট না থাকায় জলমা এলাকার দরিদ্র জনগোষ্ঠীর ছেলে-মেয়েদের সহরে পাঠিয়ে লেখাপড়া করানো মোটেই সম্ভব ছিলনা। শ্রী কলিদাস টিকাদার বি,এসসি পাশ করার পর আত্ম প্রতিষ্ঠা লাভের সকল বাসনাকে ত্যাগ করে এলাকার মানুষের কথা ভেবে বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠার জন্য আত্ম নিয়োগ করেন। তিনি অত্র এলাকার বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গের সহায়তায় বিদ্যালয় সংলগ্ন জমির মালিকদের নিকট হতে ২৫.৫ শতক জমি ক্রয় করে বিদ্যালয়ের অনুকূলে দান করেন। অবশেষে ১৯৫৭ সালের ২ জানুয়ারি প্রতিষ্ঠা লাভ করে বিদ্যালয়টি। বাবু জ্যোতিষ চন্দ্র রায় ২৫ শতক জমি বিদ্যালয়ের অনুকূলে দান করেন। পরবর্তী সময়ে জমি ক্রয়ের মাধ্যমে বিদ্যালয়ের খেলার মাঠ ও অন্যান্য জায়গা সম্প্রসারিত করা হয়েছে।

ছবি নাম মোবাইল ইমেইল
তপন কুমার বিশ্বাস 01717003607 jalmaschool@gmail.com

ছবি নাম মোবাইল ইমেইল

জলমা চকরাখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়

বিগত পাঁচ বছরের শ্রেনিভিত্তিক ছাত্র-ছাত্রীর তথ্য

 

বছর

শ্রেণি

ছাত্র

ছাত্রী

মোট

 

 

২০১০

৬ষ্ঠ শ্রেণি

১১৩

১২২

২৩৫

৭ম শ্রেণি

৮৩

৯২

১৭৫

৮ম শ্রেণি

১১৬

৮১

১৯৭

৯ম শ্রেণি

৭৭

৭৬

১৫৩

১০ম শ্রেণি

৬০

৭৫

১৩৫

 

বছর

শ্রেণি

ছাত্র

ছাত্রী

মোট

 

 

২০১১

৬ষ্ঠ শ্রেণি

১০১

১০৪

২০৫

৭ম শ্রেণি

৮৬

৯৩

১৭৯

৮ম শ্রেণি

১০৬

৯৩

১৯৯

৯ম শ্রেণি

৮৯

৬৮

১৫৭

১০ম শ্রেণি

৮২

৭৯

১৬১

 

বছর

শ্রেণি

ছাত্র

ছাত্রী

মোট

 

 

২০১২

৬ষ্ঠ শ্রেণি

১০৮

১০৭

২১৫

৭ম শ্রেণি

১০১

৯৯

২০০

৮ম শ্রেণি

৬৩

৮৩

১৪৬

৯ম শ্রেণি

৬৫

৭৭

১৪২

১০ম শ্রেণি

৭৬

৫৮

১৩৪

 

বছর

শ্রেণি

ছাত্র

ছাত্রী

মোট

 

 

২০১৩

৬ষ্ঠ শ্রেণি

১১৯

১৩৬

২৫৫

৭ম শ্রেণি

৮২

৯৯

১৮১

৮ম শ্রেণি

৯১

৮৪

১৭৫

৯ম শ্রেণি

৬২

৭৮

১৪০

১০ম শ্রেণি

৭৭

৭৭

১৫৪

 

বছর

শ্রেণি

ছাত্র

ছাত্রী

মোট

 

 

২০১৪

৬ষ্ঠ শ্রেণি

১০৮

৯৯

২০৭

৭ম শ্রেণি

৮৪

৯৯

১৮৩

৮ম শ্রেণি

৭৬

৮৯

১৬৫

৯ম শ্রেণি

৮০

৮১

১৬১

১০ম শ্রেণি

৫৩

৭০

১২৩

১০০

জলমা চকরাখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়

বিগত পাঁচ বছরের এস,এস,সি পরীক্ষার ফলাফল

 

সাল

পরীক্ষার্থী

পাস

ফেল

A+

A

A-

B

C

D

পাসের হার

মন্তব্য

২০০৯

৭১

৬৪

০৭

০৫

২৫

১৯

০৬

০৯

--

৯০.১৪%

 

২০১০

৮৬

৮৩

০৩

১০

৪৬

১৯

০৫

০৩

--

৯৬.৫১%

 

২০১১

১০২

৯৯

০৩

০৫

৪৯

২৪

১৩

০৮

--

৯৭.০৫%

 

২০১২

১০৬

১০৫

০১

১১

৫৬

২৩

১২

০৩

--

৯৯.০৫%

 

২০১৩

১০৯

১০৯

০০

১৭

৪৭

২৬

১৪

০৫

--

১০০%

 

 

 

বিগত চার বছরের জে,এস,সি পরীক্ষার ফলাফল

 

সাল

পরীক্ষার্থী

পাস

ফেল

A+

A

A-

B

C

D

পাসের হার

মন্তব্য

২০১০

১৮৮

১১২

৭৬

--

১৩

১৪

১৫

৫৭

১৩

৫৯.৫৭%

 

২০১১

২২১

২০২

১৯

--

২১

২৮

৪৭

৭৯

২৭

৯১.৪০%

 

২০১২

১৫৫

১৪৪

১১

--

২২

৩০

৩৯

৫৩

--

৯২.৯০%

 

২০১৩

১৯৬

১৯৩

০৩

৪১

৯৩

৪৩

১১

০৪

৯৮.৪৬%

 

বিগত চার বছরের জুনিয়র বৃত্তি পরীক্ষার তথ্য

 

 

সাল

ট্যালেন্ট

সাধারণ

মোট

২০১০

০৪

০৫

০৯

২০১১

-

০৫

০৫

২০১২

-

০৩

০৩

২০১৩

০৬

০৭

১৩

গুনগত মানসম্পন্ন শিক্ষা নিশ্চিত করা।



Share with :

Facebook Twitter